মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৫ অপরাহ্ন

সিদ্ধিরগঞ্জে সাংবাদিকের অফিসে ভাঙচুর : গুলি করার হুমকি

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১, ১১.২৭ পিএম
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে হেলমেট পড়ে অজ্ঞাত দুইজন দুর্ষ্কৃতকারী স্থানীয় এক সাংবাদিকের অফিস ভাঙচুর করে সিসিটিভি ক্যামেরার ডিডিআর ও হার্ডডিস্ক নিয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) দিবাগত রাত ৩ টায় সিদ্ধিরগঞ্জের এনায়েতনগর এলাকায় সাংবাদিক এমরান হোসেনের অফিসে এ ঘটনা ঘটে। এমরান হোসেন ডেইলি এশিয়ান এইজ পত্রিকার সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি এবং সিদ্ধিরগঞ্জ থানা প্রেস কাবের প্রচার ও দফতর সম্পাদক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হেলমেট পরিহিত অজ্ঞাত দুই দুর্ষ্কৃতকারী এমরানের অফিসে গিয়ে তাকে গালাগালি করতে থাকে। পরে অফিসে থাকা কেয়ারটেকারকে গালাগালির প্রতিবাদ করলে তাঁকে পিস্তল দেখিয়ে গুলি করার হুমকি দিয়ে সাংবাদিক এমরানকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আসার জন্য বল প্রয়োগ করে।

অফিসের অদূরেই সাংবাদিক এমরানের বাড়ি। অফিসে থাকা কেয়ারটেকার সাংবাদিক এমরানের বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি জানানোর একটু পরেই গøাস ভাংচুরের শব্দ পেয়ে সাংবাদিক এমরান বাড়ি থেকে অফিসের সামনে আসে। তখন এলাকার কিছু লোক সিএনজি দিয়ে আসা দুষ্কৃতকারীদের ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে সাংবাদিক এমরান হোসেন বলেন, অফিসের গøাস ভাংচুর করা এবং অফিসের সামনে বোমা সদৃশ একটি বস্তু দেখতে পাই। অফিসের ভিতরে ঢুকে দেখতে পাই সিসিটিভি ক্যামেরার ডিডিআর ও হার্ডডিস্ক নাই। তাই সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া সম্ভব হয়নি। আল্লাহর অশেষ রহমতে আমি বাসায় থাকায় হয়তো বড়ো কোনো দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গেছি।

তিনি আইনের সহায়তা কামনা এবং প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে বলেন, এর পূর্বের রাতে (২৪ জুন সোয়া তিনটায়) একজন দুষ্কৃতিকারী বাড়ির দেয়াল টপকে আমাদের বিল্ডিংয়ে প্রবেশ করে। ব্যাপারটি ঐসময় সিসিটিভি ক্যামেরায় আমার নজর পড়লে তৎনাৎ আমি বাড়ির লোকজনকে ওই লোককে ধরতে বলি। কিন্তু ঐ দুষ্কৃতকারী বাড়ির লোকজনের শব্দ পেয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মশিউর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে আলামত সংগ্রহ করে নিয়ে আসা হয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক এমরান হোসেন বাংলাদেশ ওয়াকফ্ প্রশাসকের অফিস আদেশে ই.সি নং- ২২২৩৮; এনায়েতনগর পশ্চিমপাড়া বায়তুল আমান জামে মসজিদ ওয়াকফ এস্টেটের অফিসিয়াল মোতাওয়াল্লী নিয়োগ প্রাপ্ত হয়ে আদেশ মোতাবেক মসজিদ পরিচালনা কমিটি গঠন করে বাংলাদেশ ওয়াকফ্ প্রশাসকের কার্যালয়ে কমিটি অনুমোদনের আবেদন করেন।

গত ১৮ ফেব্রæয়ারী বাংলাদেশ ওয়াকফ্ প্রশাসকের কার্যালয়ের অফিস আদেশে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসাবে মো. অহিদ আলম এবং মোতাওয়াল্লী ও সাধারণ সম্পাদক হিসাবে সাংবাদিক মোঃ এমরান হোসেনসহ ১৫ সদস্য বিশিষ্ট মসজিদ পরিচালনা কমিটি অনুমোদন দেন।

কমিটি গঠনের বিষয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে গত ২১ মে মমিনুল আলম পুষণসহ কয়েকজন মারামারি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করেন। জুম্মা নামাজ শেষে সাংবাদিক এমরান হোসেন মমিনুল আলম পুষণের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে ফোন করলে মমিনুল আলম পুষণ সাংবাদিক এমরান হোসেনকে গালাগালি ও হুমকি দিয়ে ফোন কেটে দেয়।

এ বিষয়ে গত ৩০ মে একাধিক মামলার আসামি মমিনুল আলম পুষণ (৩৩) নামে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সাংবাদিক এমরান হোসেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com