বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০:১৪ পূর্বাহ্ন

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে রূপগঞ্জে সিপিবি‘র সমাবেশ

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৬ মার্চ, ২০২২, ৩.৪৩ এএম
  • ১৩৭ বার পড়া হয়েছে

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদ ও চাল-ডাল, তেল-চিনি, পানি-বিদ্যুত-গ্যাসসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য ও সেবা সমূহের “দাম কমাও জান বাঁচাও” দাবিতে সমাবেশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী দাবিসপ্তাহ কর্মসূচির অংশ হিসাবে মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) রুপসী-মৈকুলি এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সিপিবি’র রূপগঞ্জ শাখার সম্পাদক মনিরুজ্জামান চন্দন, বক্তব্য রাখেন সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, জেলা কমিটির সদস্য শ্রমিক নেতা ইকবাল হোসেন, এম এ শাহীন, রুপগঞ্জ শাখার সদস্য আনিসুর রহমান প্রমূখ।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে শ্রমজীবি সাধারণ মানুষ আজ দিশেহারা। চরম সংকটে দিনাতিপাত করছে। অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটাররা বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়িয়ে মানুষের পকেট লোপাট করে নিচ্ছে। বর্তমান সরকার লুটপাটকারী দের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। সরকারের কর্তাব্যক্তিরা বলছে দেশের মাথাপিছু আয় ও নিম্ন আয়ের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে। এসব গল্প শুনিয়ে জনগণকে ধোঁকা দিয়ে চলেছে। অন্যদিকে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটারদের উস্কে দিচ্ছে। এই অবস্থা চলতে দেয়া যায় না। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি প্রতিরোধে সকল জনসাধারণকে রুখে দাঁড়াতে হবে। গণবিরোধী সরকার হটিয়ে শ্রমজীবি সাধারণ মানুষের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তারা আরো বলেন চাল-ডাল, তেল-চিনিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয়সীমার বাইরে চলে গেছে। টিসিবি ট্রাকের পেছনে শত শত মানুষ লাইনে দাড়িয়েও পণ্য কিনতে পারছে না। সরকারের অদক্ষতা, লুটপাটের মাশুল দিচ্ছে সাধারণ মানুষ। দেশের এখন ৯৫ ভাগ মানুষের জন্য একরকম নিয়ম, বাকি ৫ ভাগ মানুষের আরেক রকম নিয়ম এ অবস্থা চলতে পারে না। সরকারি নিয়ন্ত্রনে দক্ষ ও দুর্নীতিমুক্ত ব্যবস্থা বিকল্প বাজার ব্যবস্থাপনা ছাড়া খাদ্র দ্রব্যমূল্যের নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে দুর্নীতিমুক্ত টিসিবি এবং ন্যায্যমূল্যের দোকান চালু করতে হবে। নিত্যপণ্যের দাম কমাতে মূল্যবৃদ্ধির ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দিতে হবে। দরিদ্র মানুষের জন্য রেশনিং ব্যবস্থা চালু করতে হবে। নেতৃবৃন্দ চাল, ডাল, তেল এবং গ্যাসসহ সকল পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী ২৮মার্চ দেশব্যাপি অর্ধদিবস হরতাল সফল করার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com

sakarya bayan escort escort adapazarı Eskişehir escort