বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন

চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাবুলকে জামিন না মঞ্জুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২৩, ৪.৫২ এএম
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক।। চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাবুলকে জামিন না মঞ্জুর করেছেন চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নারায়ণগঞ্জ।

আজ (৩০ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ ঘটিকার সময় কাঁচপুর এলাকায়
সাংবাদিক নিশাণের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী বাবুলকে জামিন না মঞ্জুর করেছেন চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিজ্ঞ আদালত।

জানাগেছে, মঙ্গলবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ কাঁচপুর এলাকা থেকে তাঁকে আটক করা হয়। ডিবি হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার বিকেলে ৫৪ ধারায় নিজস্ব রায় আটক দেখিয়ে কোর্ট পুলিশের মাধ্যমে বাবুলকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বিজ্ঞ আদালত সূত্রে জানাগেছে, কাঁচপুর এলাকার সন্ত্রাসী বাবুল হোসেনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধে একাধিক মামলা থাকার কারণে, মামলা সূত্র অনুযায়ী বিষয়টি তদন্তের জন্য জামিন না মঞ্জুর করেছেন নারায়ণগঞ্জের বিজ্ঞ আদালত।

সাংবাদিক আব্দুল হালিম নিশাণ জানান, একজন গণমাধ্যমকর্মী রাষ্ট্রের এবং দেশের জনগণের জন্য সার্বক্ষণিক ভাবে কাজ করতে হয়। এবং এ কাজে যদি বাধাঁ বিঘ্নতা আসে, তাতে করে গণমাধ্যমের মৌলিক অধিকার ও বাকস্বাধীনতা ক্ষুণ্ণ হতে থাকে। এক্ষেত্রে সংবিধান অনুযায়ী দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গণমাধ্যমের কর্মীদের একান্ত নিরাপত্তা দেওয়া উচিৎ বলে মনে করেন তিনি।

এবিষয়ে ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম জানান, গত (৩০ অক্টোবর) দৈনিক বাংলাদেশ সময়ের’ নিজস্ব প্রতিবেদক আব্দুল হালিম নিশাণের উপর অতর্কিত হামলার প্রধান আসামি বাবুল এতদিন আত্নগোপনে ছিল। জেলা পুলিশ সুপার মো: গোলাম মোস্তফা রাসেলের নির্দেশক্রমে তাঁকে আটক করা হয়। ডিবি হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদে সন্তোষজনক উত্তর না দিতে পারায় তাঁকে ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য; গত (৩০ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার কাঁচপুর পশ্চিম বেহাকৈর বেন্ডসমীল এলাকা হতে একাধিক মামলার আসামি ও মাদক কারবারি বাবুল হোসেনের নেতৃত্বে ৮-১০ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী ৫-৬টি মোটরসাইকেলে করে এসে হঠাৎ হামলা করে নিশাণের উপর। এসময় সন্ত্রাসীরা লাঠি-সোঠা দিয়ে নিশাণের উপর এলোপাতাড়ি হামলা করলে মারাত্মকভাবে আহত হন তিনি। ঘটনাস্থলে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। পরে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করলে থানার এসআই আলমগীরের নেতৃত্বে পুলিশের একটি ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিশাণকে উদ্ধার করে।

ঘটনার প্রেক্ষিতে ওইদিনই সোনারগাঁ থানায় একটি জিডি ও অভিযোগ প্রদান করেন নিশাণ । জিডি নং ১৩৯৮, তারিখ ৩০-১০-২০২৩।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com