বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৫২ পূর্বাহ্ন

উন্নতমানের শিক্ষা ও সফলতা নিয়ে বেড়ে উঠা সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান স্কুল

  • আপডেট সময় রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩, ৮.৩৩ এএম
  • ২৬ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ “জানার, অনুভবের ও কল্যাণের জন্য শিক্ষা”- এ প্রতিপাদ্যকে নিয়ে সফলতার সাথে এগিয়ে চলছে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে অবস্থিত সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান স্কুলটি।

স্কুল জীবনে কাটানো বহু মুহূর্ত থাকে যা কখনো ভোলা যায় না। স্কুল জীবনের দিনগুলোকে আমরা স্বর্ণালী দিন বলেও অভিহিত করি।জীবনের ওই সময়টা আর কখনো ফিরে আসবে না। তবুও স্কুলের দিনগুলোর স্মৃতিতেই ডুবে থাকে আমাদের মন। আমাদের জীবনের বিভিন্ন সময়ে অনেক বন্ধু পাবো আমরা, কিন্তু স্কুল জীবনে যে বন্ধুগুলো ছিল তারাই হয়তো সারা জীবন পাশে থেকে যায়।

স্কুল জীবনে আমরা যে শিক্ষা পাই, সেই শিক্ষাই হল জীবনের সফলতার দরজা। স্কুল জীবন হল ভবিষ্যতের অনুশীলন যা একজন ব্যক্তিকে নিখুঁত করে গড়ে তোলে। একজন মানুষের জীবনের প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় বাড়ি থেকে, কিন্তু প্রকৃত শিক্ষা স্কুল থেকেই শুরু হয়ে থাকে।

তেমনিভাবে সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান স্কুল এগিয়ে চলছে তার সফলতা নিয়ে। স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০০ ইং সালে। সোনারগাঁ উপজেলার হাবিবপুর ঈদগাঁহ থেকে উত্তর পাশে ঐতিহাসিক বাড়ি মজলিশ গ্রামে ও নতুন সেবা জেনারেল হাসপাতালের গলি দিয়ে একটু ভিতরে অবস্থিত এই সুনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি।

মহান আল্লাহ পাক প্রতিটি শিশুকে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য দিয়ে এ পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। এটা আমাদের বুঝতে হবে। আপনার, আমার ও আমাদের সবার মতোই প্রতিটি শিশুরও কিছু ভালো দিক ও কিছু খারাপ দিক রয়েছে। একজন শিক্ষক হিসেবে এবং বাবা-মা হিসেবে আমাদের উচিত শিশুদের এই সাতন্ত্র্যকে সম্মান করা, তাদের সাহায্য করা। যাতে তাদের পছন্দের কাজটিকে তারা খুঁজে নিতে পারে। সেই কাজটি যেন তারা করতে পারে, যেটিতে তারা আনন্দ পায়। আর তাদের মধ্যে স্রষ্টার প্রতি দৃঢ় বিশ্বাস, অবিচল আস্থা এবং স্বচ্ছ আকীদা সৃষ্টির মাধ্যমে নিষ্কলুষ চরিত্র গঠনের প্রেরণা দান করে ইহকাল ও পরকালের কল্যাণের শিক্ষায় শিক্ষিত করে দেশ ও জাতির নিঃস্বার্থ সেবায় আত্মনিয়োগকারী হিসেবে গড়ে তোলার মধ্য দিয়ে মহান আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি অর্জন করাই এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

সরেজমিনে ঘুরে ও খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান স্কুলটি সম্পূর্ণ কোলাহল মুক্ত, সুনির্দিষ্ট পাঠ পরিকল্পনা অনুযায়ী পাঠদান, অভিজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষকমন্ডলী কর্তৃক পরিচালিত, প্রভাতী ও দিবা শাখা দুই শিফটের ভিত্তিতে ক্লাস নেয়া, প্রতি শাখায় সর্বোচ্চ ২৫ জন শিক্ষার্থী নিয়ে ক্লাস, এসোসিয়েশনের মাধ্যমে ১ম – ৫ৃ শ্রেণি পর্যন্ত সিকা বৃত্তি পরীক্ষা নেয়ার ব্যবস্থা এবং ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অর্জনকারীকে পুরস্কৃত করাসহ আরও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য সমূহ রয়েছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে। এছাড়াও রয়েছে এক লক্ষ টাকার মেধা বৃত্তি প্রদান। যা ২০২৪ ইং শিক্ষা বর্ষ থেকে (প্লে-৮ম) শ্রেণি পর্যন্ত চলমান থাকবে।

উল্লেখ রয়েছে, ২০১৫ শিক্ষাবর্ষে সোনারগাঁ উপজেলায় এ+ প্রাপ্তির হার ৮৫.৭১ এবং ১১টি ট্যালেন্টপুল বৃত্তি (সরকারি) পেয়ে সমগ্র উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষায় সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেন এর মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করে এই সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান কিন্ডারগার্টেনটি। এছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন ধরনের আনন্দ মূলক অনুষ্ঠানসহ বিশেষ পাঠ্য কার্যক্রম।

আগামী ২০২৪ ইং শিক্ষাবর্ষে প্লে গ্রুপ থেকে ১০ম শ্রেণিতে পর্যায়ক্রমে প্রভাতি ও দিবা শাখায় ভর্তি চলছে। তাই আপনার সন্তানকে একজন আদর্শ ও নীতিবান করে গড়ে তোলার জন্য সোনারগাঁ খালেক আঞ্জুমান কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষার মান যাচাই করে ভর্তি করুন।

বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কামাল মোল্লা জানান, বর্তমান বিশ্বের আধুনিক বিজ্ঞানসম্মত ও তথ্য প্রযুক্তির তীব্র প্রতিযোগিতামূলক সময়ে ইহকাল ও পরকালের উভয় জগতের জ্ঞান সমূহকে একটি সুষ্ঠ নীতিমালার মাধ্যমে সমন্বয় সাধন করে একটি মডেল হিসেবে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিকে গড়ে তোলার চেষ্টায় অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীদের আন্তরিক সহযোগিতা প্রয়োজন। শিক্ষার্থীরা যদি প্রকৃত শিক্ষা লাভ করে নিজ ও দেশ গড়ার কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করে, তবেই আমাদের সম্মিলিত প্রয়াস সার্থক হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com