মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
বাংলাদেশ আ.লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপন কর‌লেন আজ‌মেরী ওসমান বন্দরে তুচ্ছ ঘটনা কে কেন্দ্র করে বাড়িতে এসে মারধর থানায় অভিযোগ খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়েছে জার্মানিকে রুখে দিয়ে শেষ ষোলোতে সুইজারল্যান্ড সংগঠন শক্তিশালী করে জনগণের আস্থা অর্জন করুন কেউ খারাপ কথা বললেও এখন আর গায়ে লাগে না: দীঘি সিদ্ধিরগঞ্জে যুবলীগ অফিসে টেনশন গ্রুপের লিডার সীমান্তের হামলা, নারী নেত্রীকে শ্লীলতাহানী প্রিমিয়ার ব্যাংক নারায়ণগঞ্জ শাখায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা লোপাট সোনারগাঁয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে আওয়ামীলীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ব্যর্থতার দায়ে রোশান-বুবলীকে বাদ দিলেন নির্মাতা

ইইউ’র প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক টিম ঢাকায়

  • আপডেট সময় রবিবার, ৯ জুলাই, ২০২৩, ৪.১৯ এএম
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে

সরজমিনে বাংলাদেশের নির্বাচনী পরিবেশ তথা আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন পূর্ব রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনুসন্ধানী অগ্রগামী দলের সদস্যরা এখন ঢাকায়। গতকাল শনিবার ইইউ’র ৬ সদস্যের প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলের দু’জন সদস্য ঢাকায় পৌঁছেছেন। বাকি ৪ জন মধ্যরাতে বাংলাদেশে পৌঁছানোর কথা। ঢাকাস্থ ইউরোপীয় ইউনিয়ন ডেলিগেশন প্রধানের দপ্তর এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ইইউ জানিয়েছে, রোববার থেকে ইইউ টিমের দুই সপ্তাহব্যাপী ঢাকা মিশন শুরু হবে। মিশনের মূল কাজ হবে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের পরিবেশ আছে কি-না? তা খতিয়ে দেখা। অর্থাৎ আগামী নির্বাচনে ইইউ পর্যবেক্ষক টিম পাঠালে তার কর্মপরিধি কি হবে, বাজেট, লজিস্টিক্স ও নিরাপত্তা ইত্যাদি বিষয় নির্বাচন কমিশন কতোটা ফ্যাসিলিটেড করবে তার আগাম মূল্যায়ন করা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে গত বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন জানান, নির্বাচন কমিশনের আমন্ত্রণে ইইউ’র অনুসন্ধানী মিশন বাংলাদেশে আসছে। এখানে অবস্থানকালে টিমটি সরকারের প্রতিনিধি, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি, আইন-শৃংখলা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত বিভিন্ন বাহিনীর কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা, সুশীল সমাজ এবং গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবে। উল্লেখ্য, মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার ও সব অংশীজনের সঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং সদস্যদেশগুলো নিবিড়ভাবে কাজ করছে। ইইউ বাংলাদেশের সব রাজনৈতিক দল ও নাগরিকদের রাজনৈতিক অধিকার চর্চা এবং সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে উৎসাহিত করছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক প্রধান জোসেপ বোরেল সেøাভাকিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য ইভান স্টিফেনেককে লেখা এক ফিরতি চিঠিতে গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের তাগিদ দিয়েছেন। সেখানে তিনি ওই নির্বাচনে সব অংশীজনের ভূমিকা চেয়ে বলেন, বাংলাদেশে নির্বাচনপ্রক্রিয়ার ওপর আস্থা সৃষ্টির জন্য সব অংশীজনকে ভূমিকা রাখতে হবে। আর সে জন্য প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে অর্থবহ সংলাপ এবং নাগরিক সমাজের কাজের ক্ষেত্র নিশ্চিত করতে হবে।

এর আগে জোসেপ বোরেলকে গত ১২ জুন একটি চিঠি লিখেছিলেন ইভান স্টিফেনেকসহ ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ছয় সদস্য। তাতে বাংলাদেশে মানবাধিকার লংঘন বন্ধ, চলমান সংকটের টেকসই ও গণতান্ত্রিক সমাধানের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সরকারের আলোচনার কথা বলা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার তাঁদের ওই চিঠির জবাব দেন জোসেপ বোরেল। বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে গত ১২ জুন ওই চিঠি দেয়ার জন্য ইভান স্টিফেনেককে ধন্যবাদ জানান জোসেপ বোরেল। ওই চিঠিতে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ছয় সদস্য যে উদ্বেগ জানান, সে বিষয়ে অবগত আছেন বলেও ইইউর সিনিয়র প্রতিনিধি তার ফিরতি চিঠিতে উল্লেখ করেন। জোসেপ বোরেল লিখেন, বাংলাদেশ সরকার ইউরোপীয় ইউনিয়নকে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। ওই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে বাংলাদেশে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের পরিস্থিতি, উপকারিতা ও সম্ভাব্যতা পর্যালোচনার জন্য তথ্যানুসন্ধান মিশন পাঠানো হচ্ছে।

বাংলাদেশে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে অর্থবহ সংলাপের কথা উল্লেখ করে ইইউর পররাষ্ট্রনীতি প্রধান বলেন, বাংলাদেশে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, সভা-সমাবেশের স্বাধীনতাসহ মৌলিক স্বাধীনতাগুলোর সুরক্ষা গণতন্ত্রের জন্য অপরিহার্য। যে কোন ধরণের সহিংসতার নিন্দা করে ইইউর সিনিয়র প্রতিনিধি বলেন, মানবাধিকার, গণতন্ত্র, আইনের শাসন ইউরোপীয় ইউনিয়নের মূল্যবোধ ও নীতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাই এ বিষয়গুলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাংলাদেশের সঙ্গে নিয়মিতভাবে উত্থাপন করে থাকে। ইইউর সিনিয়র প্রতিনিধি জানান, বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের বিষয়টি ইইউ নিবিড়ভাবে লক্ষ রাখছে। তিনি (খালেদা জিয়া) যেন সম্ভাব্য সেরা চিকিৎসা সুবিধা পান সেটি গুরুত্বপূর্ণ। এ বিষয়ে ইইউ বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। ওদিকে ইইউ প্রতিনিধি দলের সফরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তেমন কিছু করণীয় নেই জানিয়ে মন্ত্রণালয়ের মূখপাত্র বলেছেন, তাদের জানানো হয়েছে, সফরকারী ইইউ’র অনুসন্ধানী টিমের রিপোর্টের ভিত্তিতেই দ্বাদশ নির্বাচনে ইউরোপীয় ইউনিয়ন পর্যবেক্ষণ মিশন পাঠানো বা না পাঠানোর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, কেবল অনুসন্ধান টিম নয়, মানবাধিকার বিষয়ক ইইউ-র বিশেষ প্রতিনিধি ইমন গিলমোর চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে বাংলাদেশে আসছেন। সফরকালে তিনি কক্সবাজারস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন এবং মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা সরকারী বেসরকারী প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com

sakarya bayan escort escort adapazarı Eskişehir escort