রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অপসারণসহ ৭ দাবিতে বাম জোটের রোড মার্চ

  • আপডেট সময় বুধবার, ৩ নভেম্বর, ২০২১, ৪.৫৭ এএম
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস বন্ধে ব্যর্থতার দায়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অপসারণ, হামলার জন্য দায়ীদের শাস্তি ও ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ পুনর্বাসনসহ ৭ দাবিতে রোড মার্চ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) বাম গণতান্ত্রিক জোটের উদ্যোগে ঢাকা-কুমিল্লা-ফেনী-চৌমুহনী-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জে রোড মার্চ শেষে সকাল ১০টায় সোনারগায়ের কাঁচপুরে ও মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

কাঁচপুরে সমাবেশে বাম গণতান্ত্রিক জোট ও জেলা বাসদের সমন্বয়ক নিখিল দাস ও মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় বাসদ সোনারগাঁ উপজেলা সমন্বয়ক বেলায়েত হোসেন সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, কেন্দ্রীয় বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশিদ ফিরোজ, কেন্দ্রীয় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, কেন্দ্রীয় ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদী ) সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবীর জাহিদ, কেন্দ্রীয় গণসংহতি আন্দোলনের নেতা মনিরউদ্দিন পাপ্পু, কেন্দ্রীয় বাসদের (মার্কসবাদী) ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়ক ফকরুদ্দিন কবির আতিক, জেলা সিপিবির সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্ত্তী, সিপিবি সোনারগাঁ উপজেলা নেতা আব্দুস সালাম বাবুল প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, কুমিল্লা, হাজীগঞ্জ, চৌমুহনী, রামগঞ্জ, রামগতি, চট্টগ্রাম, বাঁশখালী, কক্সবাজার, সিলেট, হবিগঞ্জ, কুড়িগ্রাম, খুলনা, ফেনী, নাটোর, পীরগঞ্জসহ সারাদেশে সংঘটিত সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসে দেশবাসী স্তম্ভিত হয়েছে। মন্দির, হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘর-বাড়ি, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট, হামলা হয়েছে, অথচ প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কেউ এগিয়ে এলো না । এটা কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। পূর্ব পরিকল্পিত ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সরকার গণবিচ্ছিন্নতা ও গণবিক্ষোভের ভয়ে দেশকে ধর্মীয় বিভাজনের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এর দায় অবশ্যই সরকার-প্রশাসন ও পুলিশবাহিনীকে নিতে হবে। সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নির্লিপ্ততার কারণেই বিভিন্ন জেলায় এ সহিংসতা ঘটেছে। এ ঘটনায় দায়ে ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অপসারণ করতে হবে। সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ক্ষতিগ্রস্থদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করতে হবে।

বক্তারা আরও বলেন, ১৯৭১ সালে যে অসাম্প্রদায়িক চেতনার ভিত্তিতে দেশটা স্বাধীন হল। গত ৫০ বছর ধরে মুক্তিযুর্দ্ধে চেতনার বিপরীতে শাসকগোষ্ঠি দেশ শাসন করে সাম্প্রদায়িক মননের সামাজিকীকরণ ঘটিয়েছে। ফলে আজ প্রয়োজন সংবিধানের ৩২নং ধারা পুনঃস্থাপণ করে ধর্মীয় রাজনৈতিক দল ও রাজনীতিতে ধর্মের ব্যবহার নিষিদ্ধ করা। রাষ্ট্রধর্ম বিল ও সংবিধানের উপর বিসমিল্লাহ্ বাতিল করা । ধর্মীয় আলোচনার নামে ভিন্ন ধর্মের বিরুদ্ধে ও নারী বিদ্বেষী বক্তব্য দানকারীদের বিরুদ্ধে প্রদক্ষেপ নেয়ার জন্যে আমরা দাবী জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com