মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

সোনারগাঁয়ে প্রকাশ্যে চলছে জুয়ার আসর, বন্ধের দাবি

  • আপডেট সময় সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১, ৪.২৩ এএম
  • ৪১ বার পড়া হয়েছে

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: সোনারগাঁয়ে পুলিশ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে নদীর পাড়ে ৩টি স্পটে প্রকাশ্যে চলছে জুয়া খেলার আসর। উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে পাকুন্ডা পূর্বপাড়া গ্রামের নদীর পাড়ে ৩টি স্পটে এ জুয়ার আসর বসে। ফলে এলাকায় বৃদ্ধি পাচ্ছে চুরি, ছিনতাইসহ নানা অপরাধ প্রবণতা। ভেঙ্গে পড়ছে আইনশৃংখলা।
এলাকাবাসী সমাজে শান্তি শৃংখলা স্বাভাবিক রাখাসহ বড় ধরণের যে কোন অপরাধ প্রবনতা রুখতে ওই ৩টি জুয়ার আসর বন্ধের দাবি জানিয়েছে। রবিবার (২৫ জুলাই) সকালে পাকুন্ডা পূর্বপাড়া নদীর পাড়ে অত্র গ্রামের লোকজন একত্রিত হয়ে এ জুয়াখেলা বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ জানায়।
এলাকাবাসী জানায়, পুলিশ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে পাকুন্ডা পূর্বপাড়া গ্রামের নদীর পাড়ে একই গ্রামের মৃত মোসলেম মিয়ার পুত্র জাকির এর নেতৃত্বে স্থানীয় অজ্ঞাত নামা প্রায় ৪/৫ জনের শেল্টারে তিনটি স্পর্টে দেদারসে চলছে জুয়া খেলা। আড়াইহাজার, রূপগঞ্জ ও সোনারগাঁও থেকে জোয়ারিরা এসে দিন-দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চালিয়ে যাচ্ছে এই জুয়ার আসর।
দৈনন্দিন লক্ষাধিক টাকার জুয়া খেলা হয়, সেখানে নেতৃত্বে থাকা সিনিয়র জুয়াড়ীরা প্রতি বোর্ড বাবদ মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। এইভাবে সর্বস্ব হারিয়ে নবাগত জুয়াড়ীরা প্রতিনিয়ত খুজে নিচ্ছে অসাদুপায়। ফলে বৃদ্ধি পাচ্ছে চুরি, ছিনতাই সহ অপরাধ প্রবণতা।
স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির কারণে কিশোর বয়সের ছেলেরা বুঝে উঠার আগেই করাল গ্রাসে এই সর্বস্ব খোয়ানো খেলায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। প্রশাসন সংশ্লিষ্টদের তৎপর না থাকার কারণেই এমনি ভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে জুয়াড়ীরা জুয়ার আসর।
এ ব্যাপারে জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির ভূইয়া বলেন, আমি বেশ কিছুদিন যাবৎ শুনতেছি পাকুন্ডা গ্রামে জুয়া খেলা হচ্ছে। ওই ওয়ার্ডের মেম্বারকে জানিয়েছি। মেম্বার বলেছেন তাদের ব্যাপারে ফাড়িঁতে অভিযোগ দেয়া আছে। একপর্যায়ে আমি নিজেই জুয়া খেলা বন্ধের দাঁবিতে এলাক লোকজন নিয়ে স্পটে যাই। আমাদেরকে দেখে জুয়ারিরা পালিয়ে যায়।
১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার গেলমান বলেন, এখানে প্রতিনিয় জুয়া খেলা হয়। আমি জুয়া খেলা বন্ধ করার জন্য তাততলা ফাড়িঁতে অভিযোগ জানিয়েছি। তাছারা মোসলেমের ছেলে জাকিরকে বার বার নিষেধ করার পর শুনেনা।
এ বিষয়ে তালতলা বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইকবাল হোসেন বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com