রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৪১ অপরাহ্ন

রাতের আধারে বন্দরের জনশূন্য গ্রামে বসত বাড়িতে দুর্বৃত্তদের আগুন

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১, ৩.৪৮ এএম
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

বন্দরে সদ্য অনুষ্ঠিতব্য ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকায় সিল মারার গুজবে পুলিশের গলায় ছুরি চালানো মামলার আসামি নব নির্বাচিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যানের জনশূন্য গ্রামে রাতের আধাররে দুর্বৃত্তরা এক বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করার খবর পাওয়া গেছে।

 

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাতে বন্দর উপজেলার জাঙ্গালস্থ গ্রামে মধ্যেপাড়া এলাকার ইমান আলী মিয়ার চৌচলা টিনে ঘরে এ অগ্নিসংযোগের ঘটনাটি ঘটে।

অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উক্ত ঘরটি ভস্মিভুত হলেও এ ঘটনায় কোন হতাহতের সংবাদ পাওয়া যায়নি। অগ্নিসংযোগের ঘটনা পরাজিত নৌকা প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান কামাল হোসেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় এমন অভিযোগ করেন।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের উদ্দেশ্যেমূলক বক্তব্য আমলে নিচ্ছে না পরাজিত নৌকা প্রার্থী মাসুম আহম্মেদ। তবে মামলা আতঙ্কে পড়েছে তার ্ওই গ্রামের কর্মী-সমর্থকরা ।

সূত্রে জানাগেছে, দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে বন্দর উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে সুষ্ঠ নির্বাচন পরিচালনায় নির্দেশ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের। সেই নির্দেশনায় ১১ নভেম্বর সুষ্ঠ নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনের আগের দিন রাতে কেন্দ্রে কেন্দ্রে টহল ডিউটির মহড়ায় ছিলেন।

ধামগড় ইউনিয়নের ৪ ভোট কেন্দ্রের মোবাইল টহল ডিউটির দায়িত্বে ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক নুরু মিয়া, উপ পরিদর্শক সোহেল মোল্লা, সহকারি উপ পরিদর্শক আব্দুল হাই, কনস্টবল ওয়াসিম আকরাম, কনস্টবল সাকিল আহম্মেদ।

রাতে তারা ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করে নৌকা সিল মারার গুজব ছড়িয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেন ও তার ভাই আজিজুল হক দেড়-দুইশ লোকজনকে সঙ্গে নিয়ে দুই কিলোমিটার দৌঁড়ে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের লাঙ্গলবন্দ এলাকায় এসে মোবাইল টহল ডিউটির পুলিশের গাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় জবাই করে হত্যার উদ্দেশ্যে গলায় ছুরি চালায় এবং হাঁতুড়ি দিয়ে মাথা থেঁতলে গুরত্বর আহত করে রাস্তা ফেলে রাখে এবং অস্ত্র লুটে নেয়।

এ মামলায় আসামিদের গ্রেপ্তারে ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান (স্বতন্ত্র) মো. কামাল হোসেন নিজ জাঙ্গাল গ্রামে পুলিশের অভিযান অব্যহত থাকায় জনশূন্য হয়ে পড়ে পুরো গ্রাম।

জনশূন্য এই গ্রামের মধ্যেপাড়া ইমান আলীর বাড়ির ভেতরে হঠাৎ চৌচালা একটি টিনের ঘরে দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেন আসামি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন। অগ্নিকান্ডের এ ঘটনায় ওই ঘরে থাকা দুইটি ড্রাম চালসহ আসবাবপত্র ভস্মিভূত হয়।

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত থানায় অভিযোগ করতে আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দেখা হবে প্রকৃত ঘটনা। পুলিশের গলায় ছুরি চালানো মামলাটি ডিবি পুলিশকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারাই আসামিদের গ্রেপ্তারের অভিযান চালাচ্ছেন। তাদের সহযোগীতা রয়েছে থানা পুলিশ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com