সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০:০০ পূর্বাহ্ন

কিশোরীকে গণধর্ষণ শেষে মুমূর্ষু অবস্থায় ফেলে গেল তিন বন্ধু

  • আপডেট সময় বুধবার, ১০ নভেম্বর, ২০২১, ৪.১৫ এএম
  • ৪৪ বার পড়া হয়েছে

ফরিদপুরে বাড়ির সামনে থেকে এক কিশোরীকে (১৩) তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করেছে তিন বন্ধু। এ ঘটনায় অভিযুক্ত তিন বন্ধুকে গ্রেফতার করেছে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশ। পরে তাদের মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায় সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জামাল পাশা।
গ্রেফতার তিন বন্ধু হলেন, ফরিদপুর সদরের ডিক্রিরচর ইউনিয়নের আইজুদ্দিন মাতুব্বরের ডাঙ্গী গ্রামের বাসিন্দা অটো চালক আকাশ শেখ (১৮), একই গ্রামের রাজমিস্ত্রির সহযোগী রণি শেখ (১৮) ও নর্থ চ্যানেল পূর্বডাঙ্গী গ্রামের ট্রলি চালক শিপন শেখ (১৯)।

লিখিত বক্তব্যে পুলিশ জানায়, গত রোববার (৭ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে ফরিদপুর সদরে চর মাধবদিয়া ইউনিয়নের আছিরউদ্দিন মুন্সীর ডাঙ্গীর নিকলী হাওড়স্থ জনৈক ইদ্রিস শেখের রসুনখেতে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এর আগে ওই কিশোরী রাত ১০টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে বাড়ির বাইরে এলে পাশের নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের একটি গ্রাম থেকে ধর্ষকরা তাকে মুখ চেপে ধরে একটি ইজিবাইকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে পালাক্রমে ধর্ষণ শেষে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই তরুণীকে একটি ফাঁকা মাঠে মুমূর্ষু অবস্থায় ফেলে রেখে যায়।

খোঁজ পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে রাতেই ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কালজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

ওই কিশোরী বর্তমানে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন।
ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফরিদপুর সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায়। পুলিশ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিন বন্ধুকে গ্রেফতার করেছে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ জলিল বলেন, প্রযুক্তির সহায়তায় এ ধর্ষণ মামলার এজাহারনামীয় আসামি আকাশ শেখকে গতকাল সোমবার (৮ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১টা ৫৫ মিনিটে ফরিদপুর সদরের টেপাখোলা বেড়িবাঁধ এলাকায় অবস্থিত মিলন পালের ইটের ভাটার পেছন থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্য অনুয়ায়ী রাত আড়াইটার দিকে রনিকে এবং রাত তিনটার দিকে শিপনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল খায়ের বলেন, এ ব্যাপারে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে গতকাল সোমবার (৮ নভেম্বর) দিবাগত রাতে আকাশসহ অজ্ঞাতনামা চার/পাঁচ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

তিনি বলেন, গ্রেফতার তিন আসামিকে মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে এক নম্বর আমলি আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 rudrabarta24.net
Theme Developed BY ThemesBazar.Com